অন্যান্যজাতীয়

ময়মনসিংহে ‘ জাতীয় পেশাগত স্বাস্থ্য ও নিরাপত্তা দিবস’ পালিত

ময়মনসিংহে পেশাগত স্বাস্থ্য ও সেইফটি দিবস পালিত

অফিস ডেস্ক: “সুস্থ্য শ্রমিক, শোভন কর্মপরিবেশ, গড়ে তুলবে স্মার্ট বাংলাদেশ” প্রতিপাদ্য নিয়ে সারা দেশের ন্যায় বিভাগীয় নগরী ময়মনসিংহে জাতীয় পেশাগত স্বাস্থ্য ও সেইফটি দিবস পালিত হয়েছে। কর্মক্ষেত্রে পেশাগত স্বাস্থ্য ও সেইফটি নিশ্চিতকরণের লক্ষ্যে ভবনের নিরাপত্তা, মেশিনের নিরাপত্তা, অগ্নি নিরাপত্তা, নারী শ্রমিকদের প্রসুতি কল্যাণ সুবিধা প্রদান, শ্রমিকদের স্বাস্থ্য সুরক্ষা বিষয়ে মালিক-শ্রমিককে সচেতন করতে প্রতিবছরের ন্যায় এ বছর ২৮ এপ্রিল দেশব্যাপী জাতীয় পেশাগত স্বাস্থ্য ও সেইফটি দিবস উদযাপিত হচ্ছে। দিবসটি উপলক্ষে ময়মনসিংহ বিভাগীয় প্রশাসনের সহযোগিতায় এবং কলকারখানা ও প্রতিষ্ঠান পরিদর্শন অধিদপ্তরের উদ্যোগে আজ (২৮ এপ্রিল) রবিবার বর্ণাঢ্য র‍্যালী ও আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয় । সকাল ১০ ঘটিকায় ময়মনসিংহ বিভাগীয় কমিশনারের কার্যালয় চত্বরে দিবসের কর্মসূচি উদ্বোধন করেন অতিরিক্ত বিভাগীয় কমিশনার (সার্বিক), মোহাম্মদ আজিজুর রহমান, বিপিএএ। এরপর ময়মনসিংহ জেলা পরিষদের ভাষা শহীদ আব্দুল জব্বার স্মৃতি মিলনায়তনে আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়। অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) মোঃ আরিফুল হক মৃদুল এঁর সভাপতিত্বে স্বাস্থ্য ও সেইফটির গুরুত্ব বিষয়ে আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়। সভায় প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন মো: আজিজুর রহমান, বিপিএএ, অতিরিক্ত বিভাগীয় কমিশনার (সার্বিক),ময়মনসিংহ বিভাগ। তিনি শ্রমিকদের সামাজিক সুরক্ষা নিশ্চিত করতে প্রধানমন্ত্রীর বিশেষ উদ্যোগ সার্বজনিন পেনশন ব্যবস্থায় সকল শ্রমজীবী মানুষের অংশগ্রহণ করার আহবান জানান। ময়মনসিংহ বিভাগের বিশেষ করে ভালুকা ও ত্রিশাল উপজেলার শিল্পাঞ্চলের কারখানাসমূহে কর্মরত শ্রমিকদেরকে সার্বজনিন পেনশন স্কিমের আওতায় আনতে মালিক পক্ষের প্রতি আহবান জানান। তিনি শিল্প কারখানায় শ্রমিকদের পেশাগত স্বাস্থ্য ও সেইফটি নিশ্চিতকরণে মনিটরিং কার্যক্রম এবং শিল্প কারখানা সংশ্লিষ্ট সকল দপ্তরের মধ্যে সুসমন্বয়ের উপর গুরুত্বারোপ করে তিনি বলেন, “কর্মক্ষেত্রে পেশাগত স্বাস্থ্য ও নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে DIFE এর মনিটরিং বাড়াতে হবে। সংশ্লিষ্ট সকল দপ্তরের মাধ্যমে এ বিষয়ে সমন্বিত উদ্যোগ গ্রহণ করতে হবে।”
সভায় স্বাগত বক্তব্য রাখেন কলকারখানা ও প্রতিষ্ঠান পরিদর্শন অধিদপ্তর, ময়মনসিংহের উপ-মহাপরিদর্শক আহমাদ মাসুদ। তিনি পেশাগত স্বাস্থ্য ও সেইফটি দিবস উদযাপনের প্রেক্ষাপট, তার দপ্তরের মিশন, ভিশন, লক্ষ্য ও অর্জন সম্পর্কে তথ্য তুলে ধরে অধিক্ষেত্রাধীন কারখানা প্রতিষ্ঠানে শ্রম আইন বাস্তবায়ন,শোভন কর্মপরিবেশ নিশ্চিতকরণ, শিশুশ্রম নিরসনে সকলের সহযোগিতা কামনা করেন। কারখানা প্রতিষ্ঠানে কর্মরত নারী শ্রমিকদের জন্য ফিমেইল হাইজেন নিশ্চিতকরণ, ননকমিউনিকেবল অকুপেশনাল ডিজিস রোধে আরগনোমিক সেইফটি নিশ্চিত করতে তিনি মালিকদের প্রতি আহবান জানান। শ্রমিকদের পেশাগত স্বাস্থ্য ও নিরাপত্তা নিশ্চিতকরণে সরকারি বেসরকারি দপ্তর ও সংস্থার মধ্যে সুসমন্বয়পূর্বক মাল্টিসেক্টরাল এপ্রোচ ও কো-অপারেশনের প্রতি গুরুত্বারোপ করেন।

আলোচনা সভায় অন্যান্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন শিল্পাঞ্চল-৫ এর পুলিশ সুপার মোঃ মিজানুর রহমান,,
রেঞ্জ ডিআইজি’র পুলিশ সুপার ( প্রশাসন ও অর্থ) মোঃ ফারুক হোসেন রেঞ্জ ডিআইজির কার্যালয়। এছাড়াও বক্তব্য রাখেন ডা. অভিজিৎ লোহ, ডেপুটি সিভিল সার্জন, ময়মনসিংহ, মোঃ আব্দুল্লাহ আল মনসুর, উপ-পরিচালক, পরিবেশ অধিদপ্তর, মো: খোরশেদ আলম সহকারী পরিচালক ও রেজিস্ট্রার অব ট্রেড ইউনিয়ন্স, আঞ্চলিক শ্রম দপ্তর, ময়মনসিংহ, জোৎসানারা বেগম, প্রজেক্ট ডিরেক্টর ড্যামিয়েন ফাউন্ডেশন। সভায় শ্রমিক প্রতিনিধি হিসেবে বক্তব্য রাখেন তফাজ্জল হোসেন, সাধারণ সম্পাদক, বাংলাদেশ ট্রেড ইউনিয়ন সংঘ, ময়মনসিংহ জেলা শাখা।অনুষ্ঠান সঞ্চালনা করেন কলকারকাখানা ও প্রতিষ্ঠান পরিদর্শন অধিদপ্তরের শ্রম পরিদর্শক (স্বাস্থ্য) নন্দন চক্রবর্তী।

One thought on “ময়মনসিংহে ‘ জাতীয় পেশাগত স্বাস্থ্য ও নিরাপত্তা দিবস’ পালিত

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *