জাতীয়রাজনীতি

রমজানে ছাঁটাই-নির্যাতন বন্ধ ও ১ মাসের মজুরি সমান উৎসব বোনাসের দাবিতে হোটেল শ্রমিক ফেডারেশনের বিক্ষোভ মিছিল সমাবেশ অনুষ্ঠিত

রমজানের পবিত্রতা রক্ষার নামে রমজান মাসে ছাঁটাই-নির্যাতন বন্ধ ও ১ মাসের মজুরির সমপরিমাণ উৎসব বোনাস প্রদানের দাবিতে ১৮ মার্চ দেশব্যাপী বিক্ষোভ মিছিল সমাবেশ অনুষ্ঠিত করেছে বাংলাদেশ হোটেল রেস্টুরেন্ট সুইটমিট শ্রমিক ফেডারেশন। কেন্দ্রীয় কর্মসূচীর অংশ হিসেবে ফেডারেশনের কেন্দ্রীয় কার্যালয় গুলিস্তান হতে সকাল ১০ টায় হোটেল শ্রমিকদের একটি বিক্ষোভ মিছিল বের হয়। মিছিলটি নগরীর বিভিন্ন সড়ক প্রদক্ষিণ করে জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে সমাবেশ অনুষ্ঠিত করে। ফেডারেশনের সহ-সভাপতি আক্তারুজ্জামান খাঁন এর সভাপতিত্বে এবং সাধারণ সম্পাদক আনোয়ার হোসেন এর সঞ্চালনায় উক্ত সমাবেশে বক্তব্য রাখেন জাতীয় গণতান্ত্রিক ফ্রন্টের কেন্দ্রীয় সহ-সভাপতি শ্যামল কুমার ভৌমিক, বাংলাদেশ ট্রেড ইউনিয়ন সংঘ ও নৌযান শ্রমিক ফেডারেশনের যুগ্ম সম্পাদক প্রকাশ দত্ত, বাংলাদেশ ওএসকে গার্মেন্টস এন্ড টেক্সটাইল শ্রমিক ফেডারেশনের সহ-সভাপতি মাহবুবুল আলম মানিক, বাংলাদেশ হোটেল রেস্টুরেন্ট সুইটমিট শ্রমিক ফেডারেশনের অর্থ-সম্পাদক রাজু আহমেদ এবং ক্রীড়া ও সাংস্কৃতিক সম্পাদক বাবুল মিয়া।
সমাবেশে নেতৃবৃন্দ বলেন, পবিত্র রমজান উপলক্ষে বিভিন্ন দেশে শ্রমজীবি মানুষদের জন্য বিভিন্ন রকম সুবিধা প্রদান করলেও আমাদের দেশে হোটেল শ্রমিকদের জন্য তা অশনি সংকেত হিসেব দেখা দেয়। এমনিতেই সারা বছর হোটেল শ্রমিকদের চাকুরির অনিশ্চয়তাসহ নিপীড়ন-নির্যাতন চলতে থাকে। রমজান মাসকে কেন্দ্র করে হোটেল মালিকরা ছাঁটাই-নির্যাতন আরো বৃদ্ধি করে। শ্রমিকদের বেতন ও ঈদ বোনাস প্রদান না করেই প্রতিষ্ঠান বন্ধ করে দেয় মালিকরা। ফলে পবিত্র রমজান মাস শেষে শ্রমিকদের ঈদ উদযাপনের পরিবর্তে আর্থিক অভাব-অনটনে এক মানবেতর পরিস্থিতি সৃষ্টি হয়। পরিবারের সদস্যদের জন্য ঈদ কেনাকাটাসহ ঈদের কোন প্রস্তুতিই শ্রমিকরা নিতে পারে না।

সমাবেশে বক্তারা আরো বলেন, নিত্যপ্রয়োজনীয় দ্রব্যমূল্য লাগামহীনভাবে বৃদ্ধি পাচ্ছে। অথচ হোটেল শ্রমিকদের মজুরি বৃদ্ধি করা হয় নি। ইতিমধ্যে হোটেল সেক্টরে মজুরি বৃদ্ধির মেয়াদ অতিক্রান্ত হলেও মজুরি বোর্ড গঠন করা হয় নি। বর্ধিত বাজারদরের সাথে শ্রমিকদের জীবনমানের সঙ্গতি রাখতে হোটেল শ্রমিকদের মহার্ঘ্যভাতাও প্রদান করা হয় নি। রেশনিং ব্যবস্থাসহ অন্যান্য কোন সামাজিক নিরাপত্তামূলক কর্মসূচীও হোটেল শ্রমিকদের জন্য বরাদ্দ রাখা হয় নি। সারা রমজান মাসে শ্রমিকরা ডিউটি করলেও ঈদের আগের দিন ছুটি দিয়ে নামকাওয়াস্তে বোনাস শ্রমিকদের প্রদান করা হয়। যা দিয়ে শ্রমিকদের কোনভাবেই ঈদের প্রস্তুতি নেয়া সম্ভব হয় নি। তাই রমজান মাসে ছাঁটাই-নির্যাতন বন্ধ ও ১ মাসের মজুরি সমপরিমাণ উৎসব বোনাসের দাবিতে হোটেল শ্রমিকরা রাস্তায় নামতে বাধ্য হয়েছে। শ্রমিকদের এই ন্যায়সঙ্গত দাবি বাস্তবায়ন করার জন্য সমাবেশে নেতৃবৃন্দ আহবান জানান। একই সাথে অবিলম্বে মজুরি বোর্ড গঠন করে বাজারদরের সাথে সঙ্গতিরেখে মজুরি প্রদান করার জন্য নেতৃবৃন্দ আহবান জানান। (প্রেস বিজ্ঞপ্তি)

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *